বুধবার, ২৮ জুলাই ২০২১, ০৩:৪৯ পূর্বাহ্ন

দাম্পত্য কলহের জেরে পোশাককর্মীকে শ্বাসরোধে খুন
মোঃ ফয়সাল ইকবল
Update : বুধবার, ২৮ জুলাই ২০২১

সত্যখবর ডেস্ক ।। বৃহস্পতিবার, ০৮ জুলাই ২০২১, ২৪ আষাঢ় ১৪২৮ |

গাজীপুরে দাম্পত্য কলহের জেরে এক নারী পোশাককর্মীকে শ্বাসরোধে খুন করে পালিয়েছে তার স্বামী। আজ দুপুরে পুলিশ বাড়ির তালাবদ্ধ কক্ষ থেকে নিহতের লাশ উদ্ধার করেছে। নিহতের নাম রোজিনা (৩৪)। ময়মনসিংহের নান্দাইল থানাধীন লোহিতপুর গ্রামের সামাদ ওরফে সমেদ সরকারের মেয়ে রোজিনা গাজীপুরের বিলাশপুর এলাকায় একটি পোশাক কারখানায় অপারেটর পদে চাকুরি করতেন। তিনি কিশোরগঞ্জের করিমগঞ্জ থানা সদর এলাকার আইন উদ্দিনের ছেলে অটোরিকশা চালক মো. সেলিমের (৪২) স্ত্রী।

গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের (জিএমপি) সদর থানার ইন্সপেক্টর (তদন্ত) সৈয়দ রাফিউল করিম জানান, আজ দুপুরে গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের সদর থানাধীন শহীদ নিয়ামত সড়কের টেকভাড়ারিয়া (মারিয়ালি) এলাকার শামসুদ্দিনের বাসার একটি তালাবদ্ধ কক্ষ থেকে গার্মেন্ট কর্মী রোজিনার লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। ঘটনার পর থেকে নিহতের স্বামী পলাতক রয়েছে।প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, দাম্পত্য কলহের জেরে বালিশ চাপা দিয়ে শ্বাসরোধে রোজিনাকে হত্যার পর লাশ ফেলে ঘরের দরজায় বাহির থেকে তালা দিয়ে পালিয়ে যায় তার স্বামী।

ময়নাতদন্তের জন্য নিহতের লাশ গাজীপুরের শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।নিহতের ভাতিজা সোহেল রানার বরাত দিয়ে পুলিশের ওই কর্মকর্তা আরো জানান, প্রথম স্বামীর সঙ্গে বিয়ে বিচ্ছেদের পর এক সন্তানের জননী রোজিনা প্রায় সাড়ে তিন বছর আগে মো. সেলিমকে বিয়ে করেন।

প্রথম স্ত্রী ও সন্তান থাকার কথা গোপন রেখে সেলিম এ দ্বিতীয় বিয়ে করেন। গাজীপুর শহরের মারিয়ালী এলাকায় দ্বিতীয় স্ত্রীকে নিয়ে ভাড়া বাসায় থেকে সেলিম এলাকায় অটোরিকশা চালাতেন। তার স্ত্রী রোজিনা চাকুরি করতেন। দাম্পত্য কলহের জেরে গত ঈদুল ফিতরের ২/৩ দিন পর দ্বিতীয় স্ত্রী রোজিনাকে রেখে সেলিম তার প্রথম স্ত্রীর কাছে চলে যায়।কয়েকমাস পর বুধবার বিকেলে সে দ্বিতীয় স্ত্রীর কাছে ফিরে আসে এবং রোজিনার কাছে গার্মেন্ট থেকে প্রাপ্ত বেতনের টাকা দাবী করে।

এনিয়ে রাতে স্বামী ও স্ত্রীর মাঝে ঝগড়া ও বাকবিতন্ডা হয়। প্রতিবেশীরা এসে তাদের শান্ত করেন। রাতের খাবার খেয়ে সেলিম ও রোজিনা বাসায় শুয়ে পড়েন।পরদিন বৃহষ্পতিবার সকালে সাড়াশব্দ না পেয়ে রোজিনাকে ডাকাডাকি করেন প্রতিবেশীরা। একপর্যায়ে বাহির থেকে তালাবদ্ধ কক্ষের সিলিং দিয়ে ঘরের ভিতরে বিছানার উপর রোজিনার লাশ পড়ে থাকতে দেখে বাড়ির কেয়ার টেকার। খবর পেয়ে পুলিশ দুপুরে ঘটনাস্থল থেকে নিহতের লাশ উদ্ধার করে।

আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
জনপ্রিয়
সর্বশেষ সংবাদ
copyright protected
%d bloggers like this: