বুধবার, ২৮ জুলাই ২০২১, ১০:৫২ পূর্বাহ্ন

মিরপুরের মালিহাদে মধ্যযুগীয় কায়দায় নির্যাতন
এইচ রহমান
Update : বুধবার, ২৮ জুলাই ২০২১

সত্যখবর ডেস্ক ।। ১২ জুলাই ।

কুষ্টিয়া মিরপুর উপজেলার মালিহাদ ইউনিয়নের আসাননগর গ্রামে পরোকিয়া প্রেম কে কেন্দ্র করে এক যুবককে মধ্যযুগীয় কায়দায় নির্যাতন চালায় স্থানীয় মেম্বার সহ প্রভাবশালীরা।

শনিবার(১০ জুলাই) দিবাগত মধ্যরাতে আসাননগর গ্রামে এক গৃহবধুর ঘর থেকে পাশের গ্রামের ঝুটিয়াডাঙ্গা এলাকার এক যুবককে আটক করে এলাকাবাসী। পরবর্তীতে সেখানে স্থানীয় জনগণ তাদেরকে দীর্ঘসময় আটকে রাখে। সেখান থেকে তাদেরকে ইউপি সদস্যর বাড়িতে নেয়া হয়। তাদেরকে ইউপি সদস্যর বাড়ির দুই বারান্দায় সারারাত আটকে রাখা হয় এবং বসানো হয় চৌকিদার পাহারা।

পরেরদিন তথা রবিবার(১১ জুলাই) সকালে সেখানেই বিচার বসানো হয়। সেখানে স্থানীয় প্রভাবশালী সহ বিচার করেন ইউপি সদস্য।সেখানে তিন হাজার টাকা জরিমানা সহ ৩০ টি বেত্রাঘাত মারার সিদ্ধান্ত হয়। পরবর্তীতে অভিযুক্ত যুবকটিকে ত্রিশটি বেত্রাঘাত করেন স্থানীয় ইউপি সদস্য নোয়াব আলী এবং পরে তাকে জুতার মালা গলায় দিয়ে এলাকায় ঘোরানো হয়।

ঘটনাটি সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়লে এলাকায় আলোচনা সমালোচনার সৃষ্টি হয়। রবিবার সকালে অভিযুক্ত যুবকের সঙ্গে যোগাযোগ করতে তার বাসায় গেলে সেখানে কাউকে পাওয়া যায়নি এবং অভিযুক্ত গৃহবধূর ও খোঁজ পাওয়া যায়নি।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায় ঝুটিয়াডাঙ্গা ওই যুবকের সঙ্গে আসাননগর এর ওই গৃহবধূ দীর্ঘদিনের প্রেমের সম্পর্ক ছিল। পরবর্তীতে সোমবার সকালে কুষ্টিয়ার পুলিশ সুপার খায়রুল আলমের দৃষ্টি নজরে আসলে মিরপুর থানা পুলিশ জিজ্ঞাসাবাদের জন্য স্থানীয় ইউপি সদস্য ও আওয়ামী লীগ নেতাসহ তিনজনকে মিরপুর থানা হেফাজতে নিয়ে আসে।

আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
জনপ্রিয়
সর্বশেষ সংবাদ
copyright protected
%d bloggers like this: