বুধবার, ২৮ জুলাই ২০২১, ১১:২০ পূর্বাহ্ন

কুষ্টিয়ায় ভুয়া সাংবাদিকদের দৌরাত্ম, বিপাকে পেশাদারর
এইচ রহমান
Update : বুধবার, ২৮ জুলাই ২০২১

এইচ রহমান : ১৫ জুলাই ২০২১।

কুষ্টিয়াতে ভুয়া সাংবাদিকের ছড়াছড়ি। এসব ভুয়া সাংবাদিকরা গাড়িতে প্রেস লিখে করছে চাঁদাবাজি, ইভটিজিং, মাদক ব্যবসা, মাদক পাচার ও কিশোর গ্যাং পরিচালনা। নাম মাত্র অনলাইন পোর্টাল খুলে অর্থের বিনিময়ে পরিচয়পত্র প্রদান করছে কথিত রেজিষ্ট্রেশনবিহীন ওইসব অনলাইন পোর্টালের সম্পাদকরা। এতে বিপাকে পড়ছেন পেশাদার সাংবাদিকরা। এইসব ভুয়া সাংবাদিকদের চালচলন এমন যে তাদের সাধারণ মানুষ সহজে ধরতে পারেন না। এমনকি পেশাদার সাংবাদিকরাও তাদের দেখে মাঝেমধ্যে বিভ্রান্ত হন। কুষ্টিয়ার বেশ কয়েকজন পেশাদার সাংবাদিক জানান, বিভিন্ন সংবাদমাধ্যম এবং সাংবাদিক সংগঠনকে ভুয়া সাংবাদিক চিহ্নিত করতে ব্যবস্থা নিতে হবে। নয়তো সাংবাদিকদের প্রতি মানুষের আস্থা কমে যাবে আর পেশাদার সাংবাদিকরা বিব্রতকর অবস্থায় পড়বেন। কুষ্টিয়াতে প্রিন্ট মিডিয়ার অনলাইন পোর্টাল ও কিছু সংখ্যক মূলধারার অনলাইন পোর্টাল ছাড়া বেশির ভাগ অনলাইন পোর্টালগুলো-ই পরিচালনা হচ্ছে বিভিন্ন অপকর্মে। এসব রেজিষ্ট্রেশনবিহীন অনলাইন পোর্টালের মাধ্যমে চাঁদাবাজি, ইভটিজিং, কিশোর গ্যাং পরিচালনার মত অপকর্ম করছে এসব ভুয়া সাংবাদিকরা। বর্তমানে দোকানের কর্মচারী, সিকিউরিটি গার্ড ব্যবসায়ী, কোম্পানীর রিপ্রেজেন্টেটিভ, রিক্সা চালক, গাড়ির ড্রাইভারও রয়েছে। পেশাদার সাংবাদিকরা মনে করেন, ঐক্যবদ্ধ ইউনিয়ন থাকলে এটি সম্ভব ছিল না। কুষ্টিয়ার বিভিন্ন প্রান্তে গণমাধ্যমের কর্মী পরিচয় দিয়ে ভয়াবহ প্রতারণা চলছে। তারা খবর প্রকাশের ভয় দেখিয়ে মানুষকে ব্ল্যাকমেইল করে হাতিয়ে নিচ্ছে টাকা-পয়সা। অনেকে থানায় দালাল হিসেবে আসামিদের ছাড়িয়ে নিতে মধ্যস্থতা করে থাকে। এছাড়া নানা অপকর্ম করতে এসব ভুয়া সাংবাদিকরা নানা নামে সংগঠনও গড়ে তুলেছে। ভুয়া অনলাইন ও অখ্যাত পত্রিকার সাংবাদিক পরিচয়ে অনেকে নানা অপরাধে জড়িয়ে পড়ছেন। পূর্বে কুষ্টিয়াতে প্রিন্ট ও অনলাইন মিডিয়ার ভুয়া সাংবাদিকদের মাদকসহ হয়েছে। এতে মূল ধারার সাংবাদিকদের সুনাম ক্ষুণ হচ্ছে। সাংবাদিক পরিচয়ধারী এসব প্রতারকের নানা অপতৎপরতায় পুলিশও অতিষ্ঠ। থানায় অপরাধীদের হয়ে নানা তদবির করাই তাদের কাজ। এছাড়া এরা গলায় সাংবাদিক পরিচয়পত্র আর গাড়িতে প্রেস লেখা স্টিকার লাগিয়ে মাদক পাচার করছে বলেও অভিযোগ রয়েছে। সাংবাদিক পরিচয়ধারী এসব প্রতারক চক্র শুধু নামসর্বস্ব পত্রিকার আইডি কার্ড বহনই নয়, বিভিন্ন ঘটনাস্থলে গিয়ে তারা মূল ধারার বড় পত্রিকার সাংবাদিকও পরিচয় দেয়। কোনো এক ছড়াকার টিটকারির সুরেই ছন্দ মিলিয়ে লিখেছেন- ‘হঠাৎ করে এই শহরে এলো যে এক সাংবাদিক, কথায় কথায় তোলে ছবি ভাবখানা তার সাংঘাতিক। তিলকে সে বানায় তাল-তালকে আবার তিল, চড়ুইকে সে পেঁচা বানায় কাককে বানায় চিল। পুলিশ দেখে মুখ লুকিয়ে পালায় দিগ্বিদিক, সবাই বলে লোকটা নাকি ভূয়া সাংবাদিক।’ পেশাদার সম্মানিত সাংবাদিকদের জন্য বিষয়টি লজ্জাকর হলেও ছড়া ছন্দের মতই ভূয়া সাংবাদিকরা কুষ্টিয়া জুড়ে বেহাল পরিস্থিতির সৃষ্টি করে ফেলেছে। মূলধারার সাংবাদিকদের দাবী, জেলা প্রশাসনের কাছে কুষ্টিয়ায় কর্মরত সাংবাদিকদের তালিকা রয়েছে। টেলিভিশন সাংবাদিক, জাতীয় পত্রিকা ও জাতীয় মানের অনলাইন প্রতিনিধি ব্যতিত পুনরায় স্থানীয় দৈনিক পত্রিকার সম্পাদকদের কাছ থেকে কর্মরত সাংবাদিকদের তালিকা নিয়ে ভুয়া সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণের প্রয়োজন। তা না হলে সাংবাদিক পরিচয়ের আড়ালে বিভিন্ন অপরাধ করে পার পেয়ে যাচ্ছে।

আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
জনপ্রিয়
সর্বশেষ সংবাদ
copyright protected
%d bloggers like this: